Ami Bangladeshi

Ami Bangladeshi

Ami Bangladeshi

Padma Bridge

পদ্মা সেতুর ইউনুস নামা ও ইত্যাদি

Padma Bridge
বিশ্বব্যাংক এবং পদ্মা সেতু নিয়ে বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর অনেক দেশের রাজধানী এখন সরব। মিডিয়াও ফলাও করে প্রচার করছে সেতুর অর্থায়নে বিশ্বব্যাংকের সিদ্ধান্তের খবর। প্রচার পেলেও বাংলাদেশ ছাড়া দ্বিতীয় কোন দেশের সাধারণ মানুষ এ নিয়ে উচ্চবাচ্য করবে এমনটা ভাবার কোন অবকাশ নেই। কারণ বাংলাদেশ নিয়ে এসব খবর বাকি বিশ্বের জন্যে নতুন কোন খবর নয়। স্বাধীন দেশ হিসাবে বিশ্ব মানচিত্রে আবির্ভূত হওয়ার শুরু হতেই প্রচার মাধ্যমে বাংলাদেশের খবর স্থান পেয়ে আসছে ভুল কারণে। বন্যা, খরা, সন্ত্রাস, খুন, গুম, দুর্নীতিতে হ্যাটট্রিক শিরোপা সহ জনসংখ্যা বিস্ফোরণ নিয়ে এমন সব আতঙ্কজনক খবর...

পদ্মা নদী তুমি, পরজনমে হইও রাধা - ১ম পর্ব

Padma Bridge Corruption in Bangladesh
ভরা বর্ষার সময় এখন। চারদিকে বন্যার পদধ্বনি। দুবেলা দুমুঠো আহার আর মাথার উপর যেনতেন ছাদের মধ্যে যাদের জীবন যুদ্ধ সীমিত তারা প্রস্তুতি নিচ্ছে নতুন এক যুদ্ধের। এ যুদ্ধ মহাশক্তিধর প্রকৃতির বিরুদ্ধে সহায় সম্বলহীন মানুষের যুদ্ধ। উজান হতে তেড়ে আসা বানের স্রোত সাময়িক ভাবে বিপর্যস্ত করবে তাদের জীবন, লন্ড ভন্ড হবে সাজানো সংসার। প্রকৃতির এ আগ্রাসনকে নিয়তি মেনে মানুষ আকড়ে ধরবে ভিটে মাটি। নৌকা, গাছ অথবা ডুবন্ত ঘরের চালকে আশ্রয় বানিয়ে চালিয়ে যাবে টিকে থাকার লড়াই। কারণ তারা জানে বিপর্যয়ের অন্য পিঠেই বপিত হয় নতুন বীজ, অংকুরিত হয় নতুন চারা, প্রস্ফুটিত হয় নতুন নতুন আশা...

৬০ কোটি টাকায় আবুল মন্ত্রীর যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ক্রয়

Padma Bridge in Bangladesh কেবল বৃহত্তম একটা রাজনৈতিক দলের ভবিষ্যতই নয়, বরং কোটি মানুষের ভাগ্য জড়িত পদ্মা সেতু ঘিরে। স্বপ্নের সোনালী পাখিরা কটা দিনের জন্যে হলেও পাখা মেলে ছিল। দক্ষিণ বাংলার উপেক্ষিত জনগণ ভেবে ছিল সে দিন হতে তারা খুব বোধহয় খুব একটা দুরে নয় যেদিন এই সেতু বদলে দেবে তাদের হাজার বছরের বঞ্চিত জীবন। কিন্তু হায়, কোথা হতে কি হয়ে গেল! একজন মন্ত্রীর কারণে আটকে গেল কোটি মানুষের শত বছরের স্বপ্ন। বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ এবং জাপানি উন্নয়ন সংস্থাগুলো সাফ জানিয়ে দিয়েছে এই মন্ত্রীর নাড়ি নক্ষত্র মাপ ঝোঁক না করা পর্যন্ত অর্থায়ন বন্ধ। নতুন কোন অভিযোগ নয়, এ অভিযোগ বাংলাদেশর পা হতে মাথা পর্যন্ত। বিদেশি সহায়তার বিশাল সব প্রকল্পে মহা দুর্নীতি গল্প লোকের কল্প কথা নয়, এ নিষ্ঠুর বাস্তবতা। এ বাস্তবতার আর্ন্তজাতিক স্বীকৃতি পর পর চার বার দেয়া হয়েছে আমাদের। আমরা বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছে এ পাপাচারে। আমাদের আমলা আর রাজনীতিবিদেরা ভেবেছিলেন আলিবাবা ৪০ চোরের...