আমি শুধু বাংলাদেশের নাগরিক, বাংলাদেশের পাসপোর্ট ব্যবহার করি

প্রথম আলোকে ফখরুদ্দীন
আমি শুধু বাংলাদেশের নাগরিক, বাংলাদেশের পাসপোর্ট ব্যবহার করি

Fakhruddin Ahmed
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক প্রধান উপদেষ্টা ফখরুদ্দীন আহমদ বলেছেন, ‘আমি শুধু বাংলাদেশের নাগরিক। একমাত্র বাংলাদেশি বৈধ পাসপোর্টই ব্যবহার করি। আমার ভিন্ন কোনো দেশের পাসপোর্ট নেই, কখনো ছিল না।’ গতকাল বুধবার টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত ফখরুদ্দীন আহমদ প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান।

সম্প্রতি আইনজীবী রফিক-উল হকসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ফখরুদ্দীন আহমদের বিরুদ্ধে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ এনেছেন। কেউ কেউ এর জন্য ফখরুদ্দীনের বিচারও দাবি করেছেন।

এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ফখরুদ্দীন আহমদ বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান থাকাকালে বা এর আগে-পরে কখনো তিনি অন্য কোনো দেশের নাগরিকত্ব নেননি, নাগরিকত্বের জন্য আবেদনও করেননি। তিনি শুধুই বাংলাদেশের নাগরিক। তিনি বলেন, তাঁর একটিই পাসপোর্ট, সেটি বাংলাদেশের।

এক প্রশ্নের জবাবে সাবেক প্রধান উপদেষ্টা বলেন, বিদেশে ছাত্রজীবনে, বিশ্বব্যাংকে চাকরিরত অবস্থায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর থাকাকালে যতবারই তিনি যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ করেছেন, প্রতিবারই বাংলাদেশি পাসপোর্টে বৈধ ভিসা নিয়ে গেছেন।

ফখরুদ্দীন আহমদের এ দাবি সম্পর্কে জানতে চাইলে রফিক-উল হক প্রথম আলোকে বলেন, ‘ফখরুদ্দীন যদি বলে থাকেন যে তিনি শুধু বাংলাদেশি নাগরিক, তাঁর আর কোনো দেশের নাগরিকত্ব নেই, তাহলে তো ভালো কথা।’
কোন তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে ফখরুদ্দীনের বিরুদ্ধে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ এনে বিচার দাবি করেছেন—এই প্রশ্নের জবাবে রফিক-উল হক বলেন, এ ব্যাপারে তাঁর কাছে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য-প্রমাণ নেই। তিনি বলেন, ‘এটা তো বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় বের হয়েছে। অনেকেই তো এ কথা বলছেন।’

ফখরুদ্দীনের দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ সরকারকে তদন্ত করে দেখার কথাও বলেছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা আকবর আলি খানসহ কেউ কেউ।

এ প্রসঙ্গে ফখরুদ্দীন আহমদ বলেছেন, ‘সরকার বা আর কেউ চাইলে নিশ্চয় তদন্ত করে দেখতে পারেন।’ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের এই সাবেক প্রধান উপদেষ্টা আগামী মাসের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ঊর্ধ্বতন গবেষক হিসেবে যোগ দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

সূত্র: প্রথম আলো
তারিখ: ১৪-০১-২০১০
http://prothom-alo.com/detail/news/34809